19:04 - October 05, 2017
সংবাদ: 2603990
সাইয়েদুশ শোহাদা ইমাম হুসাইন (আ.) ও তার ৭১ জন সঙ্গী কারবালার ময়দানে যে নির্মমভাবে শাহাদত বরণ করেছেন, তা কিয়ামত অবধি মানুষের অন্তরকে ব্যাধিত করবে।


বার্তা সংস্থা ইকনা'র রিপোর্ট: মহানবীর (সা.) প্রাণপ্রিয় দৌহিত্র সাইয়েদুশ শোহাদা ইমাম হুসাইন (আ.) ইয়াজিদের কবল থেকে তার নানার কষ্টার্জিত ইসলামকে বাচাতে জীবন বিসর্জন দিয়েছেন। শুধু তিনি নিজে নন; বরং তার সঙ্গী-সাথি এবং পরিবারবর্গও আল্লাহর দ্বীনকে রক্ষার্থে আত্মত্যাগের নজিরবিহীন দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। আর এজন্য  হয়তো ইসলামে ইমাম হুসাইনের (আ.) স্মরণে আযাদারি পালনে বিশেষ গুরুত্ব দেয়া হয়েছে।

রাসূল (সা.) ও মাসুস ইমামগণের (আ.) হাদীসে ইমাম হুসাইনের (আ.) শোকে আযাদারি ও শোকানুষ্ঠান পালনের বিশেষ সওয়াবের কথা বলা হয়েছে। বিশেষত ইমাম হুসাইনের (আ.) স্মরণে ক্রন্দন ও অশ্রু বিসর্জন সম্পর্কে ইমাম জয়নুল আবেদিন (আ.) থেকে নিম্নের হাদীসটি বর্ণিত হয়েছে-

যদি কোন মু’মিন ইমাম হুসাইনের (আ.) শাহাদতের কথা স্মরণ করে ক্রন্দন করে, তাহলে এ ক্রন্দনের মধ্য দিয়ে তার চোখ থেকে যে অশ্রু ঝরবে, সেগুলোর প্রতিটি ফোটার জন্য আল্লাহ তায়ালা বেহেস্তে তার জন্য আবাসনের ব্যবস্থা করবেন এবং সেখানে সে চিরন্তন অবস্থান করবে। (দ্র: সওয়াবুল আমাল, ১ম খন্ড, পৃ. ১০৮ এবং মুনতাখাবুল মিযানুল হিকমাহ, পৃ. ২৮)
নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য:
আলোচিত সংবাদ