IQNA

20:01 - July 22, 2019
সংবাদ: 2608945
আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ভারতের পশ্চিমবঙ্গের কাঁকিনাড়া ভাটপাড়া এলাকায় মুসলিমদের উপরে আক্রমণের প্রতিবাদে সারা বাংলা সংখ্যালঘু যুব ফেডারেশনের পক্ষ থেকে রাজ্য সংখ্যালঘু কমিশনে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়েছে। আজ (সোমবার) সারা বাংলা সংখ্যালঘু যুব ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মাদ কামরুজ্জামানের নেতৃত্বে এক প্রতিনিধিদল সংখ্যালঘু কমিশনের চেয়ারম্যানের দফতরে স্মারকলিপি দেন।

বার্তা সংস্থা ইকনা'র রিপোর্ট: স্মারকলিপিতে বলা হয়েছে গত রমজান মাস (মে, ২০১৯) থেকে উত্তর ২৪ পরগনা জেলার কাঁকিনাড়া ভাটপাড়া এলাকার সংখ্যালঘু মুসলিমদের উপরে পুলিশ প্রশাসনের উপস্থিতিতে ধারাবাহিকভাবে আক্রমণ চলছে। মুসলিমদের দোকানপাট বেছে বেছে লুটপাট ও ভাঙচুর করা হচ্ছে। এমনকী নামাজের সময় মসজিদের বাইরে শক্তিশালী বোমা ফাটানো হচ্ছে। অপরাধীরা পুলিশের সামনে ঘুরে বেড়ালেও পুলিশ তাদের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ না নিয়ে নীরব দর্শকের ভূমিকা পালন করছে।

যুব ফেডারেশনের দাবি, পশ্চিমবঙ্গ সংখ্যালঘু কমিশনের চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে সংখ্যালঘু কমিশনের এক প্রতিনিধিদল গোলযোগপূর্ণ এলাকা পরিদর্শন করে নির্যাতিত ও ক্ষতিগ্রস্ত মানুষদের সঙ্গে কথা বলে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করুন।

এপ্রসঙ্গে আজ (সোমবার) সারা বাংলা সংখ্যালঘু যুব ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মাদ কামরুজ্জামান রেডিও তেহরানকে বলেন, ‘দু’মাস ধরে ভাটপাড়া, কাঁকিনাড়া এলাকার সংখ্যালঘু মানুষদের উপরে নির্মমভাবে অত্যাচার চলছে। দেখে দেখে সংখ্যালঘু মুসলিমদের দোকানগুলো ভাঙা হচ্ছে, বাড়িগুলো লুট করা হচ্ছে, মসজিদে যাতে মানুষ নামাজ পড়তে না যেতে পারে সেজন্য মসজিদের বাইরে বোমা মারা হচ্ছে। সমগ্র ঘটনা ঘটছে পুলিশ প্রশাসনের সামনে। কোনও রাজনৈতিক চাপের কাছে নতিস্বীকার করে পুলিশ প্রশাসন অপরাধীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার পরিবর্তে তারা অপরাধীদেরকে ছেড়ে দিচ্ছে এবং গোটা ঘটনায় নীরব দর্শকের ভূমিকা পালন করছে। এসবের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেয়ার জন্য প্রশাসনের প্রতি আস্থা হারিয়ে আমরা পশ্চিমবঙ্গ সংখ্যালঘু কমিশনের চেয়ারম্যানের কাছে উপযুক্ত পদক্ষেপ নেয়ার জন্য স্মারকলিপি দিয়েছি।’ সংখ্যালঘু কমিশনের চেয়ারম্যান আবু আয়েশ মণ্ডল প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন বলেও মুহাম্মাদ কামরুজ্জামান জানান।

এর আগে ভাটপাড়া পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মাকসুদ আলম গণমাধ্যমে বলেছিলেন, ‘নির্বাচনের পর থেকে বারবার সংখ্যালঘুদের উপরে আক্রমণ চালানো হচ্ছে। ইতোমধ্যে সেখান থেকে সাতশ’/আটশ’ সংখ্যালঘুদের বাড়ি ভেঙে ফেলা হয়েছে। এলাকাছাড়া হয়েছেন বহু মানুষ। বহু দোকান ও বাড়ি লুট করা হয়েছে। ঘরছাড়া ও আক্রান্তদের তালিকা প্রশাসনকে দেয়া হয়েছে। আমরা চাই প্রশাসন সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করুক।’

সেসময় গোলযোগপূর্ণ ভাটপাড়া এলাকায় পর্যাপ্ত পুলিশি পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে বলে রাজ্যের জনশিক্ষা প্রসার ও গ্রন্থাগার পরিসেবা দফতরের মন্ত্রী মাওলানা সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরী জানিয়েছিলেন। পুলিশ প্রশাসন পদক্ষেপ না করলে সব উড়িয়ে দিত, কবেই সব শেষ হয়ে যেত বলেও তিনি মন্তব্য করেন। লোকসভা নির্বাচনের পর থেকে ভাটপাড়া, কাঁকিনাড়া এলাকা উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে। বিজেপি ও তৃণমূল আশ্রিত দুর্বৃত্তদের সহিংসতায় সংখ্যালঘু মুসলিমরা এখানে বিশেষভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। পার্সটুডে

নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য: